You are here
Home > খেলা > ড্র করে সেমিতে বায়ার্ন

ড্র করে সেমিতে বায়ার্ন

ড্র করে সেমিতে বায়ার্ন

পরাশক্তি বায়ার্ন মিউনিখের সঙ্গে ঘরের মাঠে সমানে-সমান লড়ল বেনফিকা। ম্যাচটি সমতায় শেষ হলেও প্রথম লেগের জয়ে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমি-ফাইনালে উঠে গেছে পেপ গার্দিওলার দল।

বুধবার রাতে বেনফিকার মাঠে ম্যাচটি ২-২ গোলে ড্র হয়। ফলে দুই লেগ মিলিয়ে ৩-২ গোলে জিতে শেষ চারে ওঠে বায়ার্ন। প্রথম লেগে নিজেদের মাঠে ১-০ গোলে জিতেছিল জার্মানির ক্লাবটি।

বায়ার্ন বুধবার রাতে প্রতিপক্ষের মাঠে শুরুটা ভালোই করে। প্রথম ১০ মিনিটের অধিকাংশ সময় বল দখলে একচেটিয়া এগিয়ে ছিল তারা। এরপর ধীরে ধীরে নিজেদের গুছিয়ে নিতে থাকে বেনফিকা। অবশ্য প্রথম ২৫ মিনিটে কোনো দলই তেমন কোনো সুযোগ তৈরি করতে পারেনি।

এরপরই ম্যাচের ধারার বিপরীতে অতিথিদের হতবাক করে দিয়ে ম্যাচে এগিয়ে যায় বেনফিকা। পাল্টা আক্রমণে বাঁ-দিক থেকে পর্তুগিজ মিডফিল্ডার এলিসিউয়ের দারুণ ক্রসে ছোট ডি বক্সের সামনে থেকে হেডে লক্ষ্যভেদ করেন রাউল হিমেনেস।

চার মিনিট বাদে ব্যবধান দ্বিগুণ করার সুবর্ণ সুযোগ পেয়েছিল স্বাগতিকরা, কিন্তু বক্সের মধ্যে থেকে মেক্সিকোর স্ট্রাইকার হিমেনেসের শট ঝাঁপিয়ে পড়ে ঠেকিয়ে দেন গোলরক্ষক মানুয়েল নয়ার।

৩৮তম মিনিটে আর্তুরো ভিদাল সমতা ফেরান। ডান দিক থেকে বক্সে ঢুকে ফিলিপ লামের কোনাকুনি শট স্বাগতিক গোলরক্ষক ঠেকিয়ে দিলেও বল পেয়ে যান বক্সের বাইরে ফাঁকায় দাঁড়ানো ভিদাল। বাঁ পায়ের বিদ্যুৎ গতির শটে লক্ষ্যভেদ করেন চিলির এই মিডফিল্ডার।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই এগিয়ে যায় বায়ার্ন। ৫২তম মিনিটে জাভি মার্তিনেসের হেড করে বাড়ানো বলে ডান পায়ের শটে গোলটি করেন টমাস মুলার। এই গোলের সঙ্গে বায়ার্নের শেষ চারের টিকেটও অনেকটা নিশ্চিত হয়ে যায়। কারণ দুই লেগ মিলিয়ে স্কোরলাইন ৩-১ করার পাশাপাশি মূল্যবান দুটি অ্যাওয়ে গোলও পেয়ে যায় তারা।

এ অবস্থা থেকে পরের ধাপে উঠতে কমপক্ষে দুই গোলের ব্যবধানে জিততো হতো বেনফিকাকে। ৭৬তম মিনিটে তাদের ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার তালিস্কা দারুণ এক ফ্রি-কিকে বল জালে জড়ালেও বাকি সময়ে আর কোনো গোল পায়নি দলটি।

দিনের অন্য ম্যাচে ফরাসি ফরোয়ার্ড গ্রিজমানের জোড়া গোলে বার্সেলোনাকে ২-০ ব্যবধানে হারিয়ে সেমি-ফাইনালে উঠেছে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ।

শেষ চারে ওঠা অন্য দুটি দল হলো রিয়াল মাদ্রিদ ও ম্যানচেস্টার সিটি। সেমি-ফাইনালের ড্র হবে আগামী শুক্রবার। গোল.কম।

Top