You are here
Home > আন্তর্জাতিক > ফাঁস নয় হ্যাক হয়েছে পানামা নথি

ফাঁস নয় হ্যাক হয়েছে পানামা নথি

ফাঁস নয় হ্যাক হয়েছে পানামা নথি

পানামার আইনি প্রতিষ্ঠান মোসাকা ফনসেকা জানিয়েছে, তাদের ১ কোটি ১৫ লাখ গোপন নথি ‘ফাঁস’ নয় , বরং হ্যাকিংয়ের মাধ্যমে চুরি করা হয়েছে। মঙ্গলবার বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে অফশোর কোম্পানি সৃষ্টিতে বিশেষজ্ঞ প্রতিষ্ঠানটির প্রতিষ্ঠাতা অংশীদার রেমন ফনসেকা এ তথ্য জানিয়েছেন।

রেমন ফনসেকা বলেন, কেউ হ্যাকিংয়ের বিষয়টি নিয়ে কোনো কথা বলছে না। অথচ তথ্য হ্যাক করা সবচেয়ে বড় অপরাধ। এটা নিয়ে কেউ মাথা ঘামাচ্ছে না। অফশোর কোম্পানি ব্যবস্থাপনায় খ্যাতনামা মোস্যাক ফনসেকা কোনো আইন ভঙ্গ করেনি। একমাত্র যে অপরাধটি চিহ্নিত করা গেছে তা হলো হ্যাক। কেউ এটার কথা বলছে না। অথচ এটাই চরম সত্যি।

৬৩ বছর বয়সী রেমন বলেন, ‘এ ঘটনায় ইতিমধ্যে অ্যাটর্নি জেনারেলের কার্যালয়ে অভিযোগ দায়ের করেছি এবং সরকারি একটি সংস্থা এ নিয়ে কাজ শুরু করেছে।’

বিশ্বের ৭২ টি দেশের বর্তমান ও প্রাক্তন রাষ্ট্রপ্রধান এবং রাজনীতিবিদসহ শতাধিক ক্ষমতাধর মানুষ বা তাদের নিকটাত্মীয়দের বিদেশে অর্থ পাচারের তথ্য উঠে এসেছে  মোসাক ফনসেকার ফাঁস হওয়া ১ কোটি ১৫ লাখ নথিতে। এসব নথিতে দেখা গেছে মিশরের প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট হোসনি মুবারক, লিবিয়ার প্রাক্তন রাষ্ট্রপ্রধান মুয়াম্মার গাদ্দাফি এবং সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদ প্রতিষ্ঠানটির মক্কেল। এছাড়া সৌদি বাদশাহ সালমান, আরব আমিরাতের প্রেসিডেন্ট খলিফা বিন জায়েদ বিন সুলতান, ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরনের বাবা প্রয়াত ইয়ান ক্যামেরন, মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাকের ছেলে মোহাম্মদ নাজিব, সাবেক চীনা প্রধানমন্ত্রী লি পেংয়ের মেয়ে লি শিয়াওলিন এবং পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের তিন ছেলেমেয়েও রয়েছেন মক্কেলদের তালিকায়।

কোম্পানির যেসব ইমেইল ও তথ্য যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক ইন্টারন্যাশনাল কনসোর্টিয়াম অব ইনভেস্টিগেটিভ জার্নালিস্টস ও অন্যান্য গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে সেগুলোকে ‘প্রসঙ্গের বাইরে’ ও ভুলভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে বলেও দাবি করেন র‌্যামন।

নথি ফাঁসের ঘটনাকে ‘ডাইনি শিকার’ হিসেবে অভিহিত করে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রতিষ্ঠানগুলো এই ‘ফাঁস’ থেকে সুবিধা নিতে পারবে বলেও আশঙ্কা করেন তিনি। রেমন বলেন, ‘এ ঘটনায় একটি মাত্র ঘটনা যা প্রমাণিত হয়েছে, তা হচ্ছে হ্যাক। কেউ এ বিষয়ে কথা বলছে না, অথচ এটাই সত্যি।’

Top