You are here
Home > জাতীয় > সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদকে প্রশ্রয় নয়: প্রধানমন্ত্রী

সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদকে প্রশ্রয় নয়: প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের ‘জিরো টলারেন্স’ নীতি ও কঠোর অবস্থানের কথা পুনর্ব্যক্ত করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে আমাদের দৃঢ় ভূমিকা সব সময়ই ছিল। এর বিরুদ্ধে বাংলাদেশ ইতোমধ্যে ‘জিরো টলারেন্স’ নীতি নিয়েছে। সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদকে কখনোই প্রশ্রয় দেওয়া হবে না বলেও সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এটি রোধে যা যা করার করবো। এ ধরনের ঘটনা যেন আর না ঘটে সে বিষয়েও আমরা দৃঢ় প্রতিজ্ঞ।

বুধবার দশম জাতীয় সংসদের একাদশ অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রীর জন্য নির্ধারিত প্রশ্নোত্তর পর্বে শেখ হাসিনা এ কথা বলেন। এদিন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদের অধিবেশন শুরু হলে প্রধানমন্ত্রী সরকারি ও বিরোধী দলের সংসদ সদস্যদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন।

সরকারি দলের হুইপ শহীদুজ্জামান সরকারের সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে সংসদ নেতা শেখ হাসিনা আরও বলেন, মুসলিম উম্মাহকে ঐক্যবদ্ধ হওয়া এবং সন্ত্রাসবাদ-জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর আহ্বান তিনি সবসময়ই করে থাকেন। মুসলিম উম্মাহর বিভিন্ন সম্মেলনে যতবার গেছেন, এ প্রশ্নটা সবসময়ই তিনি তুলে ধরেছেন। তার সাম্প্রতিক সৌদি আরব সফরকালেও সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের এমন কঠোর অবস্থানের কথা তিনি সৌদি বাদশাহর কাছে তুলে ধরেছেন। ওআইসি মহাসচিবের কাছেও বাংলাদেশের দৃঢ় অবস্থানের কথা তুলে ধরেছেন।

তিনি বলেন, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে সৌদি আরব একটি উদ্যোগও নিয়েছে। ওই দেশটির নেতৃত্বে গড়ে ওঠা সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদবিরোধী ইসলামিক জোটে বাংলাদেশও যোগ দিয়েছে। ৪০টি মুসলিম দেশের এই জোটে যোগদানের ফলে জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে মুসলিম দেশগুলোর ঐক্যবদ্ধ হওয়ার সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। ইসলাম শান্তির ধর্ম। এই শান্তির ধর্মের সম্মান যাতে আরও উচ্চশিখরে নিয়ে যেতে পারি, সেই প্রচেষ্টাও আমাদের অব্যাহত থাকবে।

Top