You are here
Home > কৌতুক > এবারের বিষয়: ভিক্ষুক রঙ্গ

এবারের বিষয়: ভিক্ষুক রঙ্গ

ভিক্ষুক রঙ্গ

♦ এক মিনিটের জন্য মানুষ
ভিক্ষুকঃ মাগো! দুটো ভিক্ষা দিন, মা।
বাড়ির মালিকঃ বাড়িতে মানুষ নেই, যাও।
ভিক্ষুকঃ আপনি যদি এক মিনিটের জন্য মানুষ হন, তাহলে খুব ভালো হতো।

♦ কালকের চক্কর
ভিখারি বলল, বাবু, একটা টাকা দিন।
ভদ্রলোক বললেন, কাল এসো।
ভিখারি বলল, এই কালকের চক্করে, আমার প্রায় লাখখানেক টাকা আটকে আছে এই পাড়ায়।

♦ খিচুড়ির ধাক্কা
ভিখারিকে দেখে গৃহিণী বললেন, ‘তোমাকে তো মনে হয় চিনি। মাস দুই আগে তোমরা কয়েকজন আমার এখানে খিচুড়ি খেয়ে গিয়েছিলে না?’
ভিখারি বলল, ‘হ, আম্মা। আমরা তিনজন আছিলাম। তার মধ্যে আমিই শুধু বাঁইচ্চা আছি। সেই খিচুড়ির ধাক্কা খালি আমিই সামলাইতে পারছিলাম।’

♦ ভালো আয় করে
প্রথম ব্যক্তিঃ আমার তিন ছেলে। এর মধ্যে দুজন ডিগ্রি পাস। কিন্তু ছোট ছেলেটি মোটেও পড়াশোনা করেনি, তাই সে ভিখারি!
দ্বিতীয় ব্যক্তিঃ তা হলে ছোটটিকে বাড়ি থেকে বের করে দিচ্ছেন না কেন?
প্রথম ব্যক্তিঃ কী বলছেন, মশাই? একমাত্র ওই তো ভালো আয় করে!

♦ এক টাকায় কি হবে
: স্যার, তিন তিনটা দিন খাইনা। একটা টাকা দিবেন?
: তিন দিন খাওনি, এক টাকায় কি হবে?
: দেখব, কতটা ওজন কমেছে।

♦ ট্যাক্সি করেই না হয় বাড়ি যাব
: ভাই, একটা টাকা দিবেন! বাড়ি যাব, টাকা-পয়সা নাই।
: ভাংতি যে নেই। এক’শ টাকার নোট।
: ওটা দিলেও চলবে। ট্যাক্সি করেই না হয় বাড়ি যাব।

♦ ভিক্ষাবৃত্তি ছেড়ে দাও
একদিন এক ভিক্ষুক রাস্তায় দাঁড়িয়ে ভিক্ষা করছিল। এই দেখে এক লোকের খুব দয়া হলো।
সে ভিক্ষুকের কাছে গিয়ে বলল : তুমি যদি ভিক্ষাবৃত্তি ছেড়ে দাও তাহলে তোমাকে আমি মাসে ১০০০ টাকা করে দেব।
জবাবে ভিক্ষুক লোকটিকে বলল: তুমি যদি আমার সঙ্গে ভিক্ষা করো তাহলে প্রতি মাসে আমি তোমাকে ৫০০০ টাকা দেব।

♦ আমার সাথে নাইমা পড়েন
ভিক্ষুকঃ স্যার, দয়া করে আমাকে একটা টাকা দেন।
পথচারীঃ নেই।
ভিক্ষুকঃ তাইলে আট আনা পয়সা দিন।
পথচারীঃ বললাম তো নেই।
ভিক্ষুকঃ তাইলে স্যার আমার সাথে নাইমা পড়েন।

♦ পরিবর্তন
পথচারীঃ এই মিথ্যুক! তুমি তো অন্ধ নও। তুমি অন্ধ সেজে ভিক্ষা করছ কেন?
ভিক্ষুকঃ ঠিকই ধরেছেন স্যার। যে অন্ধ সে আজ ছুটিতে গেছে। তার জায়গায় আমার ডিউটি পড়েছে। আসলে আমি বোবা।

♦ যৌতুক
১ম ভিক্ষুকঃ এই মিয়া তুমিনা আগে রেল স্টেশনে ভিক্ষা করতা। এইখানে আইছ কেন?
২য় ভিক্ষুকঃ ওই জায়গাডা মেয়ের জামাইরে যৌতুক দিছি।

Top