You are here
Home > সারাদেশ > মতলবে ১৫ দিনেও আটক হয়নি ধর্ষণ চেষ্টায় অভিযুক্ত মাদক ব্যবসায়ী হালিম

মতলবে ১৫ দিনেও আটক হয়নি ধর্ষণ চেষ্টায় অভিযুক্ত মাদক ব্যবসায়ী হালিম

শ্লীলতাহানী

১৫ দিনেও আটক হয়নি চাঁদপুরের মতলব দক্ষিণ উপজেলায় জমি নিয়ে বিরোধের জেরে এক গৃহবধূকে ধর্ষণচেষ্টায় অভিযুক্ত মাদক ব্যবসায়ী হালিম। ভুক্তভোগী গৃহবধূ সোনিয়া ব্রেকিংনিউজ প্রতিবেদককে জানান, লম্পট হালিম তো গ্রেফতার হয়ই নি উল্টো এখন সে তার মাদক ব্যবসার সহযোগীদের দিয়ে বিভিন্ন ভাবে তাকে হুমকি-ধামকি দিচ্ছে। ভুক্তভোগী গৃহবধূ চাঁদপুর জর্জ কোর্টে নারী ও শিশু নির্যাতন ধারায় যে মামলাও (মামলা নাং ৩২১/১৬) দায়ের করছেন তা আমলে নিয়ে ইতিমধ্যেই মাদক ব্যবসায়ী হালিমের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছে আদালত। সেই পরোয়ানা বর্তমানে স্থানীয় থানায় আমলের অপেক্ষায় আছে। এর আগে ঘটনার পর চাঁদপুরের পুলিশ সুপার শামসুন্নাহারও হালিমকে দ্রুত গ্রেফতারের জন্য মোখিকভাবে নির্দেশ দিয়েছিলেন মতলব দক্ষিণের থানাকে।

ধর্ষণ চেষ্টায় অভিযুক্ত হালিম বিষয়ে জানতে চাইলে একই এলাকার জাহাঙ্গীর আলম জানান, পৈলন খানের ছেলে অভিযুক্ত হালিম এলাকায় গাজুটি হালিম নামে সমধিক পরিচিত। তার অত্যাচারে অনেক দিন ধরেই ভীত সন্ত্রস্ত হয়ে থাকত এলাকার মেয়ে-বৌ’রা। সে এলাকায় একজন চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী। উঠতি তরুনদের হাতে সে ইয়াবা, ফেনসিডিল ও গাঁজার মত ভয়ংকর মাদক সরবারহ করছে কয়েক বছর ধরে। সমাজ সুরক্ষায় তিনিও হালিমকে দ্রুত গ্রেফতার করে বিচারের আওতায় আনার দাবি জানান।

প্রসঙ্গত, জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে মতলব পৌরসভার ঢাকিরগাঁও গ্রামের হাওলাদার বাড়িতে বখাটে হালিম ৩১ই মে রাত ২টায় ৮-১০ জন সহযোগীকে নিয়ে গৃহবধূ সোনিয়ার ঘরে ঢুকে তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। সোনিয়া এতে বাঁধা দিলে হালিম ঘরের আসবাবপত্র ভাংচুর করে, ঘরের টিনের বেড়ায় এলোপাতালি কোপায় এবং সোনিয়ার শিশু সন্তানকে ছুড়ে ফেলে তাকে আহত করে। সোনিয়ার চিৎকার শুনে বাড়িন অন্য নারীরা তাকে সাহায্য করার জন্য এগিয়ে আসলে মধ্যরাতে সে তাদের উপরও চড়াও হয়। এ সময় সব নারীদের সমন্বিত চিৎকারে পাড়ার অন্য লোকেরা এগিয়ে আসলে সহযোগীসমেত হালিম পালিয়ে যায়। পরে অবশ্যও পুলিশও ঘটনাস্থলে আসে কিন্তু তাৎক্ষনিকভাবে তারা হালিমকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়নি।

Top