You are here
Home > ঢাকার খবর > নতুন ব্যাংকিং এর অভিজ্ঞতা দিতে এমটিবি নিয়ে এল ৪ ধরনের ডেবিট ও ক্রেডিট কার্ড

নতুন ব্যাংকিং এর অভিজ্ঞতা দিতে এমটিবি নিয়ে এল ৪ ধরনের ডেবিট ও ক্রেডিট কার্ড

নতুন ব্যাংকিং এর অভিজ্ঞতা দিতে এমটিবি নিয়ে এল ৪ ধরনের ডেবিট ও ক্রেডিট কার্ড

বাংলাদেশের গ্রাহকদেরকে একদম নতুন ব্যাংকিং এর অভিজ্ঞতা দিতে দেশের শীর্ষস্থানীয় আর্থিক প্রতিষ্ঠান মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক লিমিটেড (এমটিবি) নিয়ে এলো চার ধরনের ডেবিট ও ক্রেডিট কার্ড।

নানা বৈশিষ্ট্যমন্ডিত নতুন এই কার্ডগুলো হচ্ছে ওয়ার্ল্ড, টাইটেনিয়াম, গোল্ড ও ক্ল্যাসিক মাস্টারকার্ড।

রোববার (০৫ জুন) রাজধানীর সোনরগাঁও হোটেলে মাস্টারকার্ডের সহযোগিতায় বাংলাদেশের গ্রাহকদের জন্য নিয়ে আসা কার্ডগুলোর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অর্থ প্রতিমন্ত্রী এম. এ. মান্নান, এমটিবি’র চেয়ারম্যান এম. এ. রউফ জেপি, মাস্টারকার্ড বাংলাদেশের কান্ট্রি ম্যানেজার সৈয়দ মোহাম্মদ কামাল।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অর্থ প্রতিমন্ত্রী এম. এ. মান্নান বলেন,  মাস্টারকার্ডের সহযোগিতায় এমটিবি’র ডেবিট, ক্রেডিট কার্ড চালুর উদ্যোগটি অত্যন্ত উৎসাহজনক। কেননা এটি নিরাপদে ও স্বাচ্ছন্দ্যে আধুনিক ব্যাংকিং পণ্য ও সেবা প্রচলনের ক্ষেত্রে বাংলাদেশকে আরো এগিয়ে নেবে।

এই উদ্যোগের ফলে দেশের আরো অনেক মানুষ এখন থেকে নিয়মিত মাস্টারকার্ড ডেবিট কার্ড ও ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারের আওতায় চলে আসবেন।

প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, আমাদের মধ্যে যে পরাধীনতার মনোভাব রয়েছে তা দূর করে এগিয়ে চলতে হবে। আর দেশের মানুষের মধ্যে বর্তমান যেসব বিষয়গুলো প্রতীয়মান তা বলে দেয় আমরা সঠিক পথেই আছি।

এম. এ. রউফ জেপি তার বক্তব্যে বলেন, এমটিবি সব সময়ই ব্যাংকিং সেবায় গ্রাহকদের জীবনধারাকে অধিকতর স্বাচ্ছন্দ্যময় করে তুলতে চায়। এরই ধারাবাহিকতায় মাস্টারকার্ডের সহযোগিতায় নতুন কার্ড চালুর ফলে প্রযুক্তিনির্ভর আর্থিক লেনদেনের ক্ষেত্রে গ্রাহকদের জীবনধারা আরো সাবলীল ও সৃমদ্ধ হবে বলে আশা করছি।

মাস্টারকার্ড বাংলাদেশের কান্ট্রি ম্যানেজার বলেন, বাংলাদেশ এখন অর্থনৈতিকভাবে একটি অগ্রসরমান দেশ। পাশাপাশি এ দেশে নিত্যনতুন ইলেকট্রনিক পদ্ধতির লেনদেনও দ্রুত বিকশিত ও উন্নত হচ্ছে। নতুন এসব কার্ড চালুর মাধ্যমে মাস্টারকার্ড ও এমটিবি গ্রাহকদের জন্য নগদ অর্থ বহনের পরিবর্তে ইলেকট্রনিক পদ্ধতিতে নিরাপদ লেনদেনের যে সেবা চালু করেছে তা অব্যাহত রাখতে উভয় প্রতিষ্ঠানই একসঙ্গে কাজ করে যাবে।

অনুষ্ঠানে ডেবিট ও ক্রেডিট কার্ডগুলো সম্পর্কে জানানো হয় যে, এর মাধ্যমে দেশব্যাপী পর্যাপ্ত সুযোগ-সুবিধা উপভোগ করতে পারবেন গ্রাহকরা।

এছাড়া এমটিবি মাস্টারকার্ড ডেবিট ও ক্রেডিট ব্যবহারকারীরা দেশ ও বিশ্বব্যাপী মাস্টারকার্ডের বিস্তৃত নেটওয়ার্কের অধীন বিভিন্ন মার্চেণ্টে মূল্যছাড়সহ বিশেষ কিছু সুযোগ-সুবিধা পাবেন।

মাস্টারকার্ডের নেটওয়ার্কের আওতায় দেশের ভেতরে ১২০০ এর অধিক পার্টনার মাচের্ণ্টে সুবিধা পাওয়া যাবে। আর ওয়ার্ল্ড মাস্টারকার্ড কার্ডধারীদের জন্য বিশ্বব্যাপী ভ্রমণ, ভোজন ও গলফের ক্ষেত্রে ১৩০০-এর অধিক এক্সক্লুসিভ অফার চালু রয়েছে। এর ওপর এমটিবি মাস্টারকার্ড ডেবিট ও ক্রেডিট কার্ডধারীরা কক্সবাজার ও সিলেটের শীর্ষস্থানীয় হোটেল-রিসোর্টগুলোতে বাই-ওয়ান-গেট-ওয়ান ফ্রি অর্থাৎ হোটেলে অতিরিক্ত রাত বিনামূল্যে থাকার সুবিধা নিতে পারবেন।

ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের বলাকা লাউঞ্জসহ বিশ্বব্যাপী ১০০টি দেশের আরো ৯০০টি বিমানবন্দরের লাউঞ্জে গ্রাহকরা প্রবেশধিকার পাবেন। এছাড়া এসব কার্ডধারীরা সর্বোচ্চ চারটি পর্যন্ত কমপ্লিমেন্টারি কার্ড নিতে পারবেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথিকে নতুন কার্ডগুলোর ছবি সম্বলিত ওয়ালমেট উপহার দেয়া হয়। এছাড়া নৃত্য পরিবেশনের মাধ্যমে কার্ডগুলোর সিকিউরিটি সহ বিভিন্ন বৈশিষ্ট তুলে ধরা হয়। ছিল দেশের জনপ্রিয় সঙ্গীত শিল্পী বাপ্পা ও এলিটার গান।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন এমটিবির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান সৈয়দ মঞ্জুর এলাহী, ভাইস চেয়ারম্যান মো. হেদায়েতউল্লাহ ও পরিচালনা পর্ষদের সদস্যবৃন্দ, ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) আনিস এ খান এবং মাস্টারকার্ড বাংলাদেশের কান্ট্রি ম্যানেজার সৈয়দ মোহাম্মদ কামাল ও ভাইস প্রেসিডেন্ট গীতাঙ্ক ডি দত্ত সহ উভয় প্রতিষ্ঠানের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা এবং আমন্ত্রিত অতিথিরা।

Top