You are here
Home > জাতীয় > গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে সকলকে আগামী আন্দোলনে ঐক্যবদ্ধ হয়ে এগিয়ে আসার আহবান নজরুলের

গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে সকলকে আগামী আন্দোলনে ঐক্যবদ্ধ হয়ে এগিয়ে আসার আহবান নজরুলের

গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে সকলকে আগামী আন্দোলনে ঐক্যবদ্ধ হয়ে এগিয়ে আসার আহবান নজরুলের

গ্রেফতার নেতাদের মুক্তি ও ‘হারানো গণতন্ত্র’ পুনরুদ্ধারে গণতান্ত্রিক আন্দোলনের বিকল্প নেই বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান।

তিনি বলেন, ‘গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের আন্দোলনের পরীক্ষিত দেশনেত্রী খালেদা জিয়া। তার নেতৃত্বে গণআন্দোলনের মধ্য দিয়ে হারানো গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে হবে। এজন্য দলের সকল নেতাকর্মীদের আগামী আন্দোলনে ঐক্যবদ্ধ হয়ে এগিয়ে আসতে হবে।’

শুক্রবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাব মিলনায়তনে প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৩৫তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে এক আলোচনা সভায় এ কথা বলেন তিনি।

নজরুল ইসলাম খান বলেন,  দেশে একের পর এক হত্যা চলছে। নিউজ দেখলেই দেখা যায় শুধু হত্যা আর ব্যাংক লুট। অথচ বিএনপির নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ না থাকলেও গ্রেফতার করে মিথ্যা মামলা দেয়া হয়। আর যাদের নামে তথ্য উপাত্ত থাকার পরও গ্রেফতার করা হয় না। কোন তদন্তও হয় না। সকল দুর্নীতি ও হত্যার তদন্ত হওয়া উচিৎ।

সমস্ত দু:সংবাদ ও অন্যায় জুলুম থেকে মুক্তি পেতে হলে  গণতান্ত্রিক আন্দোলনের কোনো বিকল্প নেই বলে মন্তব্য করে নজরুল ইসলাম খান বলেন, যখন অনির্বাচিতরা রাষ্ট্রক্ষমতায়, নির্বাচিত মেয়ররা জেলে সেই পরিবেশে স্থানীয় সরকার নির্বাচনের নামে প্রহসন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।’

জনগণের কাছে জবাবদিহিমূলক সরকার প্রতিষ্ঠায় খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে চলমান গণতান্ত্রিক আন্দোলনে সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে অংশ নেয়ার আহবান জানান।

জিয়াউর রহমানের স্মৃতিচারণ করে তিনি বলেন, শহীদ জিয়া এমন একজন মানুষ ছিলেন যার সততা,দুরদৃষ্টি ও দেশপ্রেম নিয়ে তার কোনো শত্রুদের কাছেও প্রশ্ন নেই।তিনি বার বার দেশের দু:সময়ে আবির্ভাব হয়েছেন। ১৯৭১ সালে রাজনীতিবিদরা কেউ গ্রেফতার, কেউ পলায়ন করেছেন তখন জিয়াউর রহমান সামরিক বাহিনীর সদস্য হয়ে রাজনীতিবিদদের দায়িত্ব পালন করেছেন।’

‘২৫ মার্চ বিদ্রোহ করেছেন এবং ২৬ মার্চ দেশের স্বাধীনতা ঘোসণা দিয়েছেন।তিনি সামরিক শাসন জারি করেননি বরং সামরিক শাসন প্রত্যাহার করেছেন,’ বলেন তিনি।

আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলে শহীদ জিয়া আমাদের জাতি সত্তার পরিচয় নির্ধারণ করেছেন বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য করে বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘যখন খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলায় কারারুদ্ধ করার চেষ্টা চলছে,যখন তারেক রহমানকে মিথ্যা মালায় অভিযুক্তের চেষ্টা চলছে। হাজার হাজার দলীয় নেতাকর্মী কারাগারে আটক রয়েছে সেই সময়ে আলোচনাসভায় আপনারা স্লোগান দিচ্ছেন, করতালি দিচ্ছেন? দল করতে হলে নেতাদের নির্দেশ না মানলে দল কিছু করতে পারে না। দল টিকে না।’

আয়োজক সংগঠনের সিনিয়র সহ সভাপতি মুনির হোসেনের সভাপতিত্বে আরো বক্তব্য রাখেন, স্বেচ্ছাসেবক দলের সহ সভাপতি সাইফুল ইসলাম পটু, মারুফ হাসান, অ্যাডভোকেট জসিম , যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাদরেজ জামান, আনু মো. শামীম, আমিনুল ইসলাম, কাজী মানিক, উত্তরের সভাপতি ইয়াসিন আলী প্রমুখ।

Top