You are here
Home > ঢাকার খবর > প্রেমের কারনে ‘আত্মহত্যা’ করেছেন মডেল সাবিরা

প্রেমের কারনে ‘আত্মহত্যা’ করেছেন মডেল সাবিরা

প্রেমের কারনে ‘আত্মহত্যা’ করেছেন মডেল সাবিরা

মডেল এবং গান বাংলা টেলিভিশনের মার্কেটিং এক্সিজিকিউটিভ সাবিরা হোসাইনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। রাজধানীর মিরপুরের রূপনগরের একটি বাসা থেকে মঙ্গলবার সকালে পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে। ওই বাসায় সাবিরা একাই থাকতেন।

পুলিশ জানায়, মঙ্গলবার সকালে সাবিরার কথিত স্বামী নির্ঝরের কাছে খবর পেয়ে রূপনগর আবাসিক এলাকার ১২ নং রোডের ৫ নং বাড়ির ছয়তলার ফ্ল্যাট থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। লাশ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

সাবিরার বাবার নাম মনির হোসেন। তিনি দুবাই প্রবাসী। তার মা মোহাম্মদপুরে পৃথক বাসায় থাকেন। নির্ঝরকে স্বামী পরিচয় দিয়ে সাবিরা রূপনগরে সাবলেটে থাকতেন।

মৃত্যুর আগে এ মডেলের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে একটি সুইসাইড নোট ও ভিডিও বার্তা পোস্ট করা হয়।

রূপনগর থানার সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) জোহরা খাতুন জানান, লাশ ময়না তদন্তের জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজে পাঠানো হয়েছে।

ফেসবুক স্ট্যাটাস ও ভিডিও বার্তা থেকে পুলিশ ধারণা করছে, প্রেম সংক্রান্ত জটিলতার কারণে মডেল সাবিরা হোসাইন আত্মহত্যা করেছেন।

সাবিরার পরিচিতরা জানান, নির্ঝর নামে এক যুবকের সঙ্গে তার প্রেম ছিল। তাদের দুজনের মধ্যে দীর্ঘদিনের প্রেমের সম্পর্ক হলেও বিয়ের ব্যাপারে আপত্তি ছিল নির্ঝরের পরিবারের।

ধারণা করা হচ্ছে, বিষয়টি মেনে নিতে না পেরে সাড়ে ৯ মিনিটের ভিডিও বার্তায় ঘোষণা দিয়ে আত্মহত্যা করেন সাবিরা।

ওই ভিডিওতে দেখা গেছে, ছুরি হাতে বারবার পেটে ও গলায় চাপ দেয়ার চেষ্টা করেন সাবিরা। কিন্তু কাজ না হওয়ায় ভিডিওর শেষ দিকে তিনি বলেন, ‘আমি ব্যর্থ, আপাতত। ওকে, নেক্সট অ্যাটেমপ্ট নেব।’

ভিডিও বার্তা যুক্ত করে ফেসবুক স্ট্যাটাসে সাবিরা লেখেন, ‘আমি তোমাকে দোষ দিচ্ছি না। এটা তোমার ছোট ভাইকে বলা। সে আমাকে যা ইচ্ছে বলেছে। আর বেস্ট পার্ট হল, সে আমাকে বাসা থেকে বের করে দিয়েছে। আর আমার প্রশ্ন হল, তোমার কি একটুও ফিল হয়নি?’

সবশেষে নির্ঝরকে ট্যাগ করে তিনি লেখেন, ‘আমার মৃত্যুর জন্য সে (নির্ঝর) দায়ী। যদি আমি মারা যাই, তাহলে এর দায় তার।’

সাবিরা বেশ কিছু পণ্যের স্থিরচিত্রে মডেল হয়েছেন। পাশাপাশি বিভিন্ন ফ্যাশন হাউসের মডেল হিসেবেও কাজ করেছেন। মডেলিং ছাড়াও উপস্থাপনায়ও তাকে দেখা গেছে।

Top