You are here
Home > প্রযুক্তি > সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কের স্বীকৃতি পেলো ‘অগমেডিক্স ভবন’

সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কের স্বীকৃতি পেলো ‘অগমেডিক্স ভবন’

সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কের স্বীকৃতি পেলো ‘অগমেডিক্স ভবন’

সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কের (এসটিপি) স্বীকৃতি লাভ করলো অগমেডিক্স বাংলাদেশ ভবন।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ঢাকার পান্থপথের অগমেডিক্স ভবনে আয়োজিত প্রতিষ্ঠানটির একবছর পূর্তি উদযাপনে আইসিটি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এ ঘোষণা দেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমরা অগমেডিক্স ভবনকে ‘সফটওয়্যার টোকনোলজি পার্ক’ হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছি। দেশে বৈদেশিক বিনিয়োগ বাড়াতে সরকার যে উদ্যোগ নিয়েছে অগমেডিক্স বাংলাদেশ তার একটি মডেল উদাহরণ।

বাংলাদেশে অগমেডিক্সের প্রায় ৭ হাজার তরুণ কর্মী নিয়োগের সিদ্ধান্তকে তিনি সাধুবাদ জানান এবং আইসিটি মন্ত্রণালয়ের এলআইসিটি প্রোগ্রামের মাধ্যমে অগমেডিক্সে প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষিত জনবল সরবরাহের জন্য চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে বলেও জানান।

প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, অগমেডিক্সের প্রতিষ্ঠাতা ইয়ান শাকিল একজন বাংলাদেশি ভেবে আমি খুবই আনন্দিত। তার এই উদ্যোগে বাংলাদেশ একটি স্ট্রাটেজিক কান্ট্রি হিসেবে মূল্যায়ন পেয়েছে।

অগমেডিক্স বাংলাদেশ এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর আহমাদুল হকের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন আইসিটি বিভাগের সচিব শ্যাম সুন্দর সিকদার ও বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের প্রেসিডেন্ট কাজী মো. সালাহ্উদ্দিন।

শ্যাম সুন্দর সিকদার বলেন, আমরা বাংলাদেশে আইসিটি খাতে দ্রুত উন্নয়নের লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছি। সরকারির পাশাপাশি বেসরকারি সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্ক প্রতিষ্ঠা আইসিটি খাতকে আরো গতিশীল করছে। আইসিটি মন্ত্রণালয় ও হাই টেক পার্ক অথরিটি অগমেডিক্সেম মতো উদ্যোগকে সবসময় উৎসাহিত করবে বলেও আশস্ত করেন তিনি।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে কাজী মো. সালাহ্উদ্দিন বাংলাদেশে অগমেডিক্সের এ বিনিয়োগ এবং ৭ হাজার শিক্ষিত জনবলের কাজের সুযোগ হওয়ার দিকটি সত্যিই প্রসংশনীয় বলে মন্তব্য করেন।

অগমেডিক্স বাংলাদেশের ম্যানেজিং ডিরেক্টর আহমাদুল হক তার বক্তব্যে বলেন, আমরা বাংলাদেশ থেকে দেশের গন্ডি পেরিয়ে প্রযুক্তিনির্ভর সেবা দিয়ে যাচ্ছি এবং ব্যাপক সন্তোষজনক মতামত পাচ্ছি।

জমকালো এ আয়োজনে গুগল গ্লাস-ভিত্তিক বিশ্বের প্রথম ও সর্ববৃহৎ এ স্টার্টআপ কোম্পানিটির নতুন লোগো উন্মোচন করা হয় এবং তাদের ভবনের নতুন ব্র্যান্ডিংয়ের বিভিন্ন দিক তুলে ধরা হয়।

প্রসঙ্গত, অগমেডিক্সের সিইও ও কো-ফাউন্ডার ইয়ান শাকিল এবং প্রেসিডেন্ট ও কো-ফাউন্ডার পেলু ট্র্যান গুগল গ্লাস ভিত্তিক স্টার্টআপ কোম্পানির স্বপ্নদ্রষ্টা। সান ফ্রানসিসকো ভিত্তিক এ কোম্পানিটি ভারত ও বাংলাদেশে বিজনেস প্রসেস আউটসোর্সিং (বিপিও) হিসেবে ব্যবসা স্থাপন ও পরিচালনা করছে। কোম্পানিটি দ্রুত বিশ্বব্যাপি তাদের ব্যবসা সম্প্রসারণে কাজ করছে।

অগমেডিক্সের এই সেবা বাধ্যতামূলক তালিকা প্রস্তুতি থেকে ডাক্তারদের মুক্তি দেয়, একইসাথে রোগীর চাহিদা ও মানসম্পন্ন সেবার প্রতি দৃষ্টি দেয়। পরীক্ষাগারে প্রবেশের পূর্বে একজন ডাক্তার গুগল গ্লাস পড়ে নেয় এবং তারপরে কম্পিউটারের পর্দায় দৃষ্টি না দিয়ে রোগীদের সাথে কথা বলতে অগ্রসর হন।

ফর্ম, হেলথ হিস্ট্রোরি, ল্যাব অর্ডাস, প্রেসক্রিপশনস এবং অন্যান্য বিষয়গুলো সম্পন্ন হয়ে যায় একটি রিমোট স্ক্রাইব, ভার্বাল নোট ও কমান্ডের মাধ্যমে। এটি ডাক্তারদের কর্মদক্ষতা ৩০ শতাংশেরও বেশি বৃদ্ধি করে।

Top