You are here
Home > জাতীয় > জাতীয় পার্টি বর্তমান নির্বাচন পদ্ধতির পরিবর্তন চায়

জাতীয় পার্টি বর্তমান নির্বাচন পদ্ধতির পরিবর্তন চায়

এইচ এম এরশাদ

জাতীয় পার্টি ছাড়া এ দেশের উন্নয়ন সম্ভব নয় বলে মন্তব্য করেছেন সাবেক রাষ্ট্রপতি ও জাতীয় পার্টি (জাপা) চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদ। তিনি বলেছেন, দেশের উন্নয়ন-অগ্রগতির জন্য জাতীয় পার্টির বিকল্প নেই। জাতীয় পার্টি ছাড়া এ দেশের উন্নয়ন সম্ভব নয়। দেশের উন্নয়নে এই সম্মেলনের মাধ্যমে জাতীয় পার্টি ঘুরে দাঁড়াচ্ছে। আপনারা সারাদেশে এই বার্তা পৌঁছে দিন।

শনিবার রাজধানীর রমনার ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে জাতীয় পার্টির অষ্টম কাউন্সিলে দেয়া বক্তব্যে তিনি দলের নেতাকর্মীদের প্রতি এ আহ্বান জানান।

এ সময় তিনি আরও বলেন, জাতীয় পার্টি বর্তমান নির্বাচন পদ্ধতির পরিবর্তন চায়। জনগণ চলমান ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন গ্রহণ করেনি।

এরশাদ বলেন, দেশের ইতিহাসে জাতীয় পার্টির অষ্টম জাতীয় সম্মেলনই সবচেয়ে সফল। এ সম্মেলনের মাধ্যমেই জাতীয় পার্টি  ঘুরে দাঁড়াবে।

তিনি বলেন, ‘জাতীয় পার্টির বয়স ৩০ বছর ৫ মাস অতিক্রম হল। এরমধ্যে ৮টি সম্মেলন পার করেছে। দেশের ইতিহাসে কোনো রাজনৈতিক দল এরকম সফল সম্মেলন করতে পারেনি।  এরশাদ বলেন, অনেক জেল জুলম সহ্য করতে হয়েছে আমাকে। জাতীয় পার্টি এখনও বেঁচে আছে, ইনশাআল্লাহ ভবিষ্যতেও বেঁচে থাকবে।

সংসদের বিরোধী দলীয় নেত্রী ও জাতীয় পার্টির কো চেয়ারম্যান রওশন এরশাদ তার বক্তব্যে জাতীয় পার্টি থেকে যারা বিভিন্ন দলে চলে গেছেন তাদের উদ্দেশ্যে বলেন, আপনারা জাতীয় পার্টিতে ফিরে আসুন। আপনাদেরকে সম্মানজনক স্থানে রাখবো। একসঙ্গে কাজ করে দলকে শক্তিশালী করবো।

তিনি বলেন, জীবনের শেষ প্রান্তে এসেছি। মৃত্যুর আগে জাতীয় পার্টিকে শক্তিশালী হিসেবে দেখে যেতে চাই। মাটি ও মানুষের কাছে গিয়ে লাঙ্গলের কথা বলার জন্য দলটির নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

রওশন এরশাদ বলেন, জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা মিশনে সব বাধা উপেক্ষা করে বাহিনীর সদস্যদেরকে পাঠিয়েছিলেন এরশাদ। এ পদক্ষেপ জাতীয় পার্টি নিয়েছে। রাস্তাঘাট নির্মাণ, ব্রিজ নির্মাণ করেছে জাতীয় পার্টি। অতীত থেকে শিক্ষা নিয়ে দেশে এগিয়ে নেয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন তিনি।

জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান জিএম কাদের দলের ভেতরের নানা দ্বন্দ্ব ভুলে ঐক্যবদ্ধ ও অভিন্ন নেতৃত্বের প্রতি আস্থা রাখার আহ্বান জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, তিন বছরের জন্য দলের কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব নির্বাচন ও বিগত দিনের রাজনীতি পর্যালোচনা করে আগামী দিনের দিক নির্দেশনা নির্ধারণের জন্যই আজকের এ সমাবেশ।

এর আগে বেলা ১১টায় কাউন্সিলের উদ্বোধন করেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। জাতীয় পতাকা ও দলীয় পতাকা উত্তোলন এবং শান্তির প্রতীক পায়রা উড়িয়ে অষ্টম জাতীয় কাউন্সিল  উদ্বোধন করেন তিনি।

এ সময় বিরোধী দলীয় নেতা ও দলের সিনিয়র কো-চেয়ারম্যান রওশন এরশাদ, কো-চেয়ারম্যান জি এম কাদের, প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সাবেক প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট সালমা ইসলাম ও দলের মহাসচিব এ বি এম রুহুল আমীন হাওলাদার তার সঙ্গে ছিলেন।

সম্মেলনের মঞ্চে এরশাদসহ শীর্ষ নেতাদের আসন গ্রহণের পর পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত, গীতা ও বাইবেল পাঠ করা হয়। সম্মেলনের সফলতা, দলের চেয়ারম্যানসহ দেশের মানুষের সুখ-সমৃদ্ধি কামনা করে দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য কারী মোহাম্মদ হাবিবুল্লাহ বেলালী মোনাজাত করেন। এর আগে শোক প্রস্তাব পাঠ করেন প্রেসিডিয়াম সদস্য এস এম ফয়সল চিশতী।

Top