You are here
Home > সারাদেশ > চুরির অভিযোগে নিষ্ঠুর সাজা!

চুরির অভিযোগে নিষ্ঠুর সাজা!

চুরির অভিযোগে নিষ্ঠুর সাজা

চুরির অভিযোগে এক যুবককে ট্রাকের সামনে রশি দিয়ে বেঁধে চালক দ্রুতগতিতে ট্রাক চালাচ্ছে। যুবকটি বাঁচার আকুতি জানিয়ে চিৎকার আর আর্তনাদে মানুষের নজর কাড়ছে। পরে স্থানীয়রা কৌশলে ট্রাক থামিয়ে যুবককে উদ্ধার করে চালক-হেলপারকে গণপিটুনি দেয়।

শুক্রবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে এমন অমানবিক ঘটনা ঘটে বগুড়া-নাটোর মহাসড়কের সিংড়া উপজেলার শেরকোল এলাকায়।

অমানবিক এই ঘটনার ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে আপলোড করা হলে নিন্দার ঝড় উঠে। পুলিশ ওই ট্রাকটির নম্বরের সূত্র ধরে এর মালিক ও চালকের সন্ধান করছে।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী বগুড়ার সংবাদকর্মী নাজমুল হুদা নাসিম বলেন, ‘আমরা একটি প্রাইভেট কারে রাজশাহী যাচ্ছিলাম। সঙ্গে দুজন পরীক্ষার্থী ছিল। হঠাৎ চোখে পড়ে দ্রুতগতির একটি ট্রাকের সামনে রশি দিয়ে বাঁধা এক যুবক ঝুলছে। যুবকটি প্রাণভয়ে চিৎকার করছে। ঘটনাটি খুবই অমানবিক মনে হয়েছে।‘

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ট্রাকের সামনে ওই যুবককে রশিতে বেঁধে নিয়ে যাবার দৃশ্য দেখে সিংড়ার দশ মাইল ব্রিজের কাছে এক ট্রলিচালক কৌশলে রাস্তায় ব্যারিকেড দিয়ে ট্রাকটি থামান। এসময় স্থানীয় জনতা ঘটনাস্থলে এসে চালক ও হেলপারকে আটক করেন। পরে চালক ও হেলপার জানায়, মোবাইল ফোন চুরির অপরাধে তারা ওই যুবককে ট্রাকের সামনে বেঁধে শাস্তি দিচ্ছেন। এ কথা শুনে স্থানীয়রা ট্রাকচালক ও হেলপারকে গণধোলাই দিয়ে ছেড়ে দেন।  পরে তারা ট্রাকে বাঁধা ওই যুবককে মুক্ত করেন। তবে তাদের পরিচয় জানা যায়নি।

সিংড়া উপজেলার শেরকোল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান লুৎফুল কবীর রুবেল বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, কারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে তা জানা যায়নি।

সিংড়া থানার ওসি নাসির উদ্দিন মণ্ডল জানান,  ফেসবুক থেকে পাওয়া ছবিতে ট্রাক নম্বর (কুষ্টিয়া ট-১১-১৩০৭) পাওয়া গেছে। ওই নম্বরের সূত্র ধরে ট্রাক মালিক ও চালকের পরিচয় খুঁজতে অনুসন্ধান চালাচ্ছে পুলিশ। নাটোরে এই ট্রাকের সন্ধান পাওয়া যায়নি। পরিচয় পেলেই তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Top