You are here
Home > অবাক-বিস্ময় > লন্ডনে চালু হচ্ছে নগ্ন রেস্তোরাঁ!

লন্ডনে চালু হচ্ছে নগ্ন রেস্তোরাঁ!

লন্ডনে চালু হচ্ছে নগ্ন রেস্তোরাঁ

এবার লন্ডনে চালু হতে যাচ্ছে নগ্ন রেস্তোরাঁ। অর্থাৎ যারা নগ্ন হয়ে রাতের খাবার সারতে চান তারা নিশ্চিন্তে চলে যেতে পারেন সেখানে। আগামী জুনে রেস্তোরাঁটির উদ্বোধন হতে যাচ্ছে।

সেখানে যারা রাতের খাবার খেতে যাবেন তাদেরকে হতে হবে পুরোপুরি নগ্ন। শরীরে পোশাক বলতে কোন কিছুই থাকবে না। হোটেল কর্তৃপক্ষ এমন প্রস্তাব দেয়ার পর তাতে ব্যাপক সাড়া পড়েছে। এরই মধ্যে সেখানে নৈশভোজ করার আগ্রহ জানিয়ে সাইনআপ করেছেন কমপক্ষে ৩২ হাজার মানুষ।

বিষয়টি উদ্ভট শোনালেও সত্যি। ওই রেস্তোরাঁর নাম দেয়া হয়েছে বুনিয়াদি। যুক্তরাজ্যে এই প্রথম এমন একটি রেস্তোরাঁ চালু হচ্ছে। লন্ডনের কেন্দ্রীয় অঞ্চলে অবস্থিত এটি। এখানে আগতদের দেয়া হবে গাউন। থাকবে কাপড় পাল্টে নেয়ার রুম। থাকবে খুলে রাখা কাপড়ের জন্য লকার।

একসঙ্গে এ রেস্তোরাঁয় নৈশভোজ সারতে পারবে মাত্র ৪২ জন মানুষ। ফলে চাইলেই যেকেউ এখানে ঢুকে খাবার খাওয়ার পাশাপাশি নগ্নতায় মেতে উঠতে পারবেন না। আগ্রহীকে অবশ্যই তার জন্য অপেক্ষায় থাকতে হবে। তবে এরই মধ্যে এত সাড়া পেয়ে বিস্মিত উদ্যোক্তা কোম্পানি লোলিপপ-এর সেব লিঅল।

তিনি বলেন, মানুষ নগ্ন হতে ভালবাসে। সেটা হোক কোন সমুদ্র সৈকত বা স্টিম বাথ। অবশ্য এক্ষেত্রে যদি পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকে। তাহলে তারা নগ্ন হতেই পছন্দ করে। এই রেস্তোরাঁয় খাবার ও পানীয়ের জন্য মাথাপিছু বিল দিতে হবে ৯৫ ডলার। তবে কেউ যদি অর্ধনগ্ন হয়ে খাবার খেতে চান তার জন্যও আলাদা ব্যবস্থা রয়েছে। তাদেরকে সেমি ন্যাকেড এলাকায় খাবার পরিবেশন করা হবে। তাদেরকে খাবার পরিবেশন করবে অর্ধনগ্ন স্টাফরা। তবে সেলফি তোলা যাবে না।

লিঅল বলেন, উপযুক্ত পরিবেশ সৃষ্টি করতে তাদের রেস্তোরাঁ পরিচালিত হবে বিদ্যুত বা গ্যাস ছাড়াই। এতে জ্বলবে মোমবাতি। মোমের মিষ্টি আলোয় আগতরা স্বাচ্ছন্দ্যে ঘুরবেন, খাবেন। কাঠের আগুনে রান্না হবে আমিষ ও নিরামিষ খাবার। এ সময় শেফের পোশাক বলতে থাকবে মাথায় হেয়ারনেট, শরীরে থাকবে এপ্রোন।

Top