You are here
Home > জাতীয় > মে দিবসের শিক্ষা নিয়ে সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলন বেগবান করার আহ্বান খালেদা জিয়ার

মে দিবসের শিক্ষা নিয়ে সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলন বেগবান করার আহ্বান খালেদা জিয়ার

খালেদা জিয়া

মে দিবসের শিক্ষা নিয়ে বর্তমান সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলন বেগবান করার আহ্বান জানিয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।

রোববার বিকেল রাজধানীর সোহরাওর্য়াদী উদ্যানে “নিরাপত্তার কর্মক্ষেত্র বাচাঁর মত মজুরী এবং গুম-খুন, হয়রানী নির্যাতন বন্ধের দাবিতে” শ্রমিক সমাবেশে তিনি  এসব কথা বলেন।

মহান মে দিবস উপলক্ষে জাতীয়তাবাদী শ্রমিকদল এ সমাবেশের আয়োজন করে। এর আগে দুপুর দেড়টায় কোরআন তেলোয়াতের মাধ্যমে সমাবেশ শুরু হয়।

মঞ্চের উপরের দিকে সামনে একটি ব্যানারে লেখা ছিল- আমি একজন শ্রমিক এবং এই পরিচয়ে আমি গর্বিত- জিয়াউর রহমান।

খালেদা জিয়া বলেন, ‘মে দিবস রক্ত দিয়ে অধিকার আদায়ের ইতিহাস। মে দিবসের শিক্ষা নিয়ে আমাদের অধিকার আদায় করতে হবে।’

বর্তমান সরকার ‘জোর করে ক্ষমতায় বসে আছে’ উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘শেখ হাসিনার সরকার সকল দল বন্ধ করে দিয়ে একদলীয় শাসন প্রতিষ্ঠা করতে চাইছে। তারা নতুন নতুন আইন তৈরি করছে, যাতে আজীবন ক্ষমতায় থাকতে পারে।’

বর্তমান নির্বাচন কমিশনকে দিয়ে ‘কখনোই সুষ্ঠু নির্বাচন হবে না’ উল্লেখ করে বিএনপিপ্রধান বলেন, ‘হাসিনা যে রকম, নির্বাচন কমিশনও সেই রকম।’

সরকারকে উদ্দেশ্য করে খালেদা জিয়া বলেন, ‘অবিলম্বে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিয়ে জনপ্রিয়তা যাচাই করুন।’

বিএনপি চেয়ারপারসন অভিযোগ করেন, গত সাত বছরে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকার বিদেশে ৩০ হাজার কোটি টাকা পাচার করেছে।

তিনি বলেন, ‘শুধু উন্নয়নের কথা বলছে এই সরকার। কিন্তু কী উন্নয়ন করেছে এই অগণতান্ত্রিক সরকার। যতো উন্নয়ন করেছে তার চেয়ে বেশি চুরি করছে তারা।’

খালেদা জিয়া আরও বলেন, ‘প্রকল্প পাস হয়, কিন্তু বাস্তবায়ন হয় না, উন্নয়নও হয় না। একটি প্রকল্প পাস হওয়ার পর তার টাকা-পয়সা সব ভাগভাটোয়ারা করে নিয়ে যায় তারা। সময় মতো প্রকল্পের কাজ হয় না, ফলে প্রজেক্টের ব্যয় আরও বেড়ে যায়। এভাবে লুট করে আওয়ামী লীগ সাত বছরে ৩০ হাজার কোটি টাকা পাচার করেছে।’

বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের সভামঞ্চে পৌঁছালে নেতাকর্মীরা বিএনপি চেয়ারপারসনকে করতালি দিয়ে স্বাগত জানান। খালেদা জিয়াও হাত নেড়ে শ্রমিকদের অভিনন্দনের জবাব দেন।

এর আগে শ্রমিক দলের সভাপতি আনোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে দুপুর দেড়টার দিকে সমাবেশ শুরু হয়। সমাবেশ উপলক্ষে জিয়াউর রহমান, খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের ছবি সম্বলিত ডিজিটাল ব্যানার ও ফেস্টুনে সাজানো হয় সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের আশপাশের এলাকা।

Top