You are here
Home > সারাদেশ > হাজারো মানুষের সামনে আস্ত হরিণ গিলে খেল বাংলাদেশি অজগর!

হাজারো মানুষের সামনে আস্ত হরিণ গিলে খেল বাংলাদেশি অজগর!

হাজারো মানুষের সামনে আস্ত হরিণ গিলে খেল বাংলাদেশি অজগর

বৃহস্পতিবার দুপুরে আশপাশের লোকালয় থেকে মানুষজন পড়িমড়ি করে ছুটছেন বনের দিকে। সাধারণ মানুষজন তো বটেই বন বিভাগের কর্মকর্তারাও হন্তদন্ত হয়ে উপস্থিত হয়েছেন। এক বিরল দৃশ্যই সবার এ আগ্রহের কারণ।

এর আগে বৃহদাকার সাপের শিয়াল, ভেড়া অনেক কিছুই গিলে খাবার ঘটনা জানা গেলেও এবার যখন আস্ত একটি হরিণ গিলে খাওয়ার ঘটনা ছড়িয়ে পড়ল তখন তার প্রতক্ষ্যদর্শী হতে চাইল সবাই। ঘটনাটি ঘটেছে কমলগঞ্জ উপজেলার লাউয়াছড়া বন রেঞ্জের চাউতলী বিটের ২নং সেক্টরে।

সেখানে উৎসুক হাজারো মানুষের চোখের সামনে আস্ত একটি মাদি হরিণ গিলে খেয়ে ফেলে একটি বিশালাকার অজগর সাপ। এলাকাবাসী এবং বন কর্মকর্তারা বলছেন, এ ধরনের ঘটনা জীবনে প্রথমবারের মতো দেখলেন তারা।

অজগর হরিণ ধরে খাচ্ছে শুনে সেখানে ছুটে যান কমলগঞ্জের কালাছড়া বন বিট কর্মকর্তা আনোয়ার হোসেন। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে তড়িঘড়ি চলে আসেন মৌলভীবাজার জেলার সহকারী বন সংরক্ষক (বন্যপ্রাণী) মো. তবিবুর রহমানও। তিনি জানান, লোক মারফত খবর পেয়ে তিনি দ্রুত ঘটনাস্থলে যান। সাপটির আহার সম্পন্ন না হওয়া পর্যন্ত তিনি সেখানে ছিলেন।

তিনি জানান, অজগরের ভক্ষণ পর্ব শেষ হতে প্রায় তিন ঘণ্টা সময় লেগেছে। সাপটি ১৫ থেকে ২০ ফুট দৈর্ঘ্যের। আর হরিণটি ছিল আনুমানিক ১৬ থেকে ১৮ কেজি ওজনের।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মাদি হরিণটিকে পেঁচিয়ে ধরে রেখেছিল অজগরটি। এ অবস্থায় আস্তে আস্তে নিস্তেজ হরিণটি গলাধঃকরণ করে সাপটি। তারা বলেন, খাওয়ার সময় অজগরটিকে রাগান্বিত ও ক্ষুধার্ত দেখাচ্ছিল। আশপাশে বিপুলসংখ্যক মানুষের উপস্থিতিও সাপের ভোজনপর্বে ব্যাঘাত ঘটায়নি বলে মন্তব্য করেন প্রত্যক্ষদর্শীরা।

তবিবুর রহমান বলেন, বন বিভাগের কর্মজীবনে এই প্রথম এ রকম দৃশ্য দেখলাম। এ ঘটনাকে তিনি বনের জন্য ইতিবাচক বলে বর্ণনা করেন। তার মতে, এ ঘটনা বনের প্রাণিজগতের বা ‘সংস্থানগত’ ভারসাম্য ফিরে আসার বড় প্রমাণ। এ কর্মকর্তা বলেন, প্রায়ই অজগর খাবারের সন্ধানে লোকালয়ে ছুটে যায়। এতে মানুষজন ছাড়াও গৃহপালিত গরু-ছাগলের প্রাণহানির ঘটনাও ঘটে। মাঝে মাঝে অজগরেরও মানুষের হাতে প্রাণনাশের ঘটনা ঘটে। তবে বর্তমানে এ ধরনের ঘটনা কমেছে। এখন বনেই সাপ তার খাবার পেয়ে গেলে সবার জন্যই মঙ্গল।

Top