You are here
Home > সারাদেশ > জুড়িতে ভজিটিলায় ফাটলে আতঙ্কিত ২০০ পরিবার

জুড়িতে ভজিটিলায় ফাটলে আতঙ্কিত ২০০ পরিবার

জুড়িতে ভজিটিলায় ফাটলে আতঙ্কিত ২০০ পরিবার

শাকির আহমদ, মৌলভীবাজার প্রতিনিধি: বিগত কয়েক দিন টানা বৃষ্টিপাতে মৌলভীবাজারের জুড়ী উপজেলার সদর জায়ফরনগর ইউনিয়নের ভজিটিলা নামক একটি উচুঁ টিলায় বড় ফাটলের সৃষ্টি হয়েছে। এতে ওই টিলার নিচে থাকা অন্তত ২০০ পরিবার মারাত্মক ঝুকিঁর মধ্যে বসবাস করছে।

এছাড়া মাটি কেটে বিক্রি করায় একই টিলার কালীনগর এলাকায় কয়েকটি বাড়ি ঝুকিঁর মুখে পড়েছে।

এলাকাবাসী সূত্র জানায়, জায়ফরনগর ইউনিয়নের গুচ্ছগ্রাম, মনতৈল ও কালীনগর জুড়ে এই টিলার অবস্থান। ৭/৮ দিনের টানা বৃষ্টিপাতে গুচ্ছগ্রাম এলাকায় টিলার মাঝামাঝি ফাটল তৈরী হয়েছে।

গত শুক্রবার দুপুরে সরেজমিনে দেখা গেছে, গুচ্ছগ্রাম এলাকায় পাচঁ ফুট বাই সাত ফুট অংশজুড়ে ফাটলের সৃষ্টি হয়েছে। এর আশেপাশে আরও ছোট ছোট ফাটল সৃষ্টি হয়েছে। টিলার নিচে ঘনবসতি বাসস্থান রয়েছে।

গুচ্ছগ্রামের বাসিন্দা মোবারক আলী বলেন, প্রতিবছর বর্ষা মৌসুমে বৃষ্টিতে টিলাটি একটু একটু করে ধসে পড়ছে। বড় ফাটল দেখা দেয়ায় আমরা আতঙ্কিত।

টিলার নিচে টিন-বাঁশ দিয়ে তৈরী ঘরে বসবাসকারী দিনমজুর পারভীন বেগম বলেন, রাইতে ঘুম আচ না, ভয়ে থাকি। যে কোন সময় টিলা ধসে পড়তে পারে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্থানীয় একাধীক ব্যক্তি জানান, এলাকার কিছু দরিদ্র লোক প্রতিদিন টিলার বিভিন্ন স্থানে মাটি খুঁড়ে ছোট ছোট পাথর বের করে তা বিক্রি করে। বৃষ্টিতে খোঁড়া অংশ দিয়ে মাটি ধসে পড়ে ফাটরের সৃষ্টি হয়েছে।

কালীনগর গ্রামে টিরা উপড় ও নিচে কমপক্ষে ২৫-৩০টি বসতবাড়ি ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় আছে। ঐ গ্রামের বাসিন্দা রফিক মিয়া অভিযোগ কওে বলেন, এরাকার কিছু রোক টিরাকেঠে মাটি বিক্রি করছে। প্রায় রাতে ট্রাকে করে মাটি বিভিন্ন জায়গায় নিয়ে

যাওয়া হয়। মাটি বহনকারী ট্রাকের চাপে গ্রামের পাকা সড়ক ও কালভার্ট ভেঙে যাচ্ছে।

জায়ফরনগর ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা মোহাম্মদ রকিব আহমদ বলেন, মাটি কেটে ও পাথর খঁড়ে বিক্রি করার কারনে ভজিটিলার এই অবস্থা হয়েছে। এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে একাধিকবার প্রতিবেদন পাঠানো হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ নাছির উল্লাহ খান বলেন, ভজিটিলায় ফাটরের তথ্যটি জানা নেই। খোঁজ নিয়ে এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Top