You are here
Home > আন্তর্জাতিক > ৫ অঙ্গরাজ্যে জয় পেলেন ট্রাম্প, ৪টিতে হিলারি

৫ অঙ্গরাজ্যে জয় পেলেন ট্রাম্প, ৪টিতে হিলারি

ট্রাম্প-হিলারি

যুক্তরাষ্ট্রের পূর্বাঞ্চলীয় ৫ অঙ্গরাজ্যে মঙ্গলবার ডেমোক্রেটিক ও রিপাবলিকান পার্টির দলীয় বাছাই অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে রিপাবলিকান পার্টি থেকে সবগুলো অঙ্গরাজ্যে জয় পেয়েছেন ব্যবসায়ী ডোনাল্ড ট্রাম্প।

ডেমোক্রেটিক পার্টি থেকে ৪টি অঙ্গরাজ্যে জয় পেয়েছেন সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটন। তার প্রতিদ্বন্দ্বী সিনেটর বার্নি স্যান্ডার্স জয়ী হয়েছেন মাত্র একটি অঙ্গরাজ্যে।

বিবিসি জানিয়েছে, এই জয়ের মধ্য দিয়ে ট্রাম্প ও হিলারি নিজ নিজ দলের পক্ষ থেকে প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন পাওয়ার দৌড়ে অনেকটা পথ এগিয়ে গেলেন।

মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রের উত্তরপূর্বাঞ্চলীয় যে পাঁচটি রাজ্যে প্রাইমারি অনুষ্ঠিত হয় সেগুলো হলো মেরিল্যান্ড, পেনসিলভানিয়া, কানেক্টিকাট, ডেলাওয়ার ও রোড আইল্যান্ড। এ পাঁচটি রাজ্যের মোট ডেলিগেট সংখ্যা ১১৮টি। এর মধ্যে ট্রাম্প পেয়েছেন কমপক্ষে ৮২ ডেলিগেট। এর ফলে রিয়েল এস্টেট ব্যবসায়ী ট্রাম্পের এখন পর্যন্ত প্রাপ্ত মোট ডেলিগেট সংখ্যা দাঁড়িয়েছে কমপক্ষে ৯২৯। রিপাবলিকান দল থেকে মনোনয়ন পেতে কোনও প্রার্থীর দরকার কমপক্ষে ১,২৩৭ ডেলিগেট।

এদিকে মঙ্গলবার চারটি রাজ্যে জয়ের ফলে হিলারি ক্লিনটনের প্রাপ্ত মোট ডেলিগেট সংখ্যা ২,০৮৯ তে দাঁড়িয়েছে। অপরদিকে তার প্রতিদ্বন্দ্বী বার্নি স্যান্ডার্সের এ সংখ্যা ১,২৫৮। ডেমোক্রেট দলীয় মনোনয়ন পেতে কোনো প্রার্থীর কমপক্ষে ২,৩৮৩ জন ডেলিগেটের সমর্থন লাগে।

অপরদিকে, আগামী সপ্তাহে ইন্ডিয়ানার রিপাবলিকান দলীয় প্রাইমারি অনুষ্ঠিত হবে। মঙ্গলবার এ রাজ্যেই প্রচারাভিযান চালিয়েছেন রিপাবলিকান দলীয় আরেক মনোনয়ন প্রত্যাশী টেড ক্রুজ। ট্রাম্পের জয়রথ থামাতে এটিই হতে পারে তার সর্বশেষ সেরা সুযোগ। এ লক্ষ্যে আরেক প্রার্থী জন কাসিচ ইন্ডিয়ানার প্রাইমারি থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন।

এর আগে বাছাইপূর্ব জনমত জরিপেও এগিয়ে ছিলেন হিলারি ক্লিনটন ও ডোনাল্ড ট্রাম্প। হিলারির প্রতিদ্বন্দ্বী বার্নি স্যান্ডার্সের নির্বাচনি অভিযান যুক্তরাষ্ট্রে শহুরে শ্বেতকায় ও শিক্ষিত তরুণদের মধ্যে জাগরণ এনেছে। কিন্তু সেটা নির্বাচনি সাফল্যে পরিণত হয়নি। এর প্রধান কারণ হিসেবে বলা হচ্ছে, আফ্রিকান-আমেরিকান ও হিস্পানিক অভিবাসীরা তাকে কম সমর্থন দিয়েছেন। অন্যদিকে, এই সংখ্যালঘু গোষ্ঠী এবং পঞ্চাশোর্ধ্ব নারীদের সমর্থনের জোরে হিলারি প্রধান রাজ্যগুলোতে বড় জয় পেয়েছেন। মঙ্গলবার পূর্বাঞ্চলীয় যে পাঁচটি রাজ্যে দলীয় বাছাইপর্ব অনুষ্ঠিত হয় এর প্রতিটিতেই রয়েছে উল্লেখযোগ্য আফ্রিকান-আমেরিকান জনসংখ্যা।

এদিকে ট্রাম্পকে ঠেকানোর সুযোগ হাতছাড়া হয়ে যাচ্ছে—এমন দুশ্চিন্তা থেকে টেড ক্রুজ ও গভর্নর জন কেইসিক অলিখিত সমঝোতায় পৌঁছেছেন। তারা ঠিক করেছেন, নিজেদের মধ্যে ভোট ভাগাভাগির ফলে ট্রাম্প যাতে ফায়দা না নিতে পারেন, সে জন্য তারা একে অন্যের বিরুদ্ধে ভোটযুদ্ধে অংশ নেবেন না। যে রাজ্যে জরিপে কেইসিক এগিয়ে, সেখানে ক্রুজ অনুপস্থিত থাকবেন। যেখানে ক্রুজ এগিয়ে, সেখানে কেইসিক অনুপস্থিত থাকবেন।

ট্রাম্প অবশ্য তাদের এই সমঝোতাকে গুরুত্ব দিতে রাজি নন। তার মতে, এই ‘দুর্বল’ ও ‘করুণাজনক’ ফর্মুলায় তার জয় ঠেকানো যাবে না। সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম টুইটারের এক বার্তায় তিনি ক্রুজকে আবারও ‘মিথ্যাবাদী’ ও কেইসিককে ‘৩৮-এ ১’ বলে পরিহাস করেছেন। এ পর্যন্ত ৩৮টি বাছাইপর্বের নির্বাচনে কেইসিক শুধু একটি রাজ্যে জয়লাভ করেছেন।

Top