You are here
Home > জাতীয় > জুলহাজ-তনয় হত্যা দক্ষ হাতের কাজ ও পরিকল্পিত, তদন্তে সহযোগিতা করতে চায় যুক্তরাষ্ট্র

জুলহাজ-তনয় হত্যা দক্ষ হাতের কাজ ও পরিকল্পিত, তদন্তে সহযোগিতা করতে চায় যুক্তরাষ্ট্র

জুলহাজ-তনয় হত্যা দক্ষ হাতের কাজ ও পরিকল্পিত, তদন্তে সহযোগিতা করতে চায় যুক্তরাষ্ট্র

ইউএসএআইডির কর্মী জুলহাজ মান্নান ও তার বন্ধু নাট্যকর্মী মাহবুব রাব্বী তনয় হত্যা দক্ষ হাতের কাজ এবং খুনিরা প্রশিক্ষিত বলে মনে করেন ময়নাতদন্তকারী চিকিৎসক ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সোহেল মাহমুদ।

মঙ্গলবার ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে লাশের ময়নাতদন্ত শেষে তিনি সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, এ ধরনের আঘাতের পর কারও বেঁচে থাকা সম্ভব নয়। একই স্থানে উপর্যুপরি কয়েকটি আঘাত ছিল। এবং সেই আঘাত মাথার খুলি কেটে মগজ পর্যন্ত পৌঁছেছে। তনয়ের স্পাইনাল কর্ড ছিঁড়ে গেছে। কোথায় আঘাত করলে মারা যাবে, সে ধরনের প্রশিক্ষণ নিয়েই তারা কুপিয়েছে। একই স্থানে অন্তত তিনটি আঘাত করলে মগজ স্পর্শ করে। খুনিরা ভালো করেই জানে এবং জেনেই আঘাতগুলো করেছে। এটা দক্ষ হাতের কাজ এবং খুনিরা প্রশিক্ষিত।

সোমবার বিকালে কলাবাগানের লেক সার্কাস এলাকায় পার্সেল দেওয়ার কথা বলে বাসায় ঢুকে কুপিয়ে খুন করা হয় জুলহাজ মান্নান (৩৫) ও তার বন্ধু নাট্যকর্মী মাহবুব রাব্বী তনয়কে (২৬)।

ঢাকায় যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের সাবেক প্রটোকল কর্মকর্তা জুলহাজ সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক দীপু মনির খালাত ভাই। তিনি সমকামীদের অধিকার প্রতিষ্ঠার সাময়িকী ‘রূপবান’ সম্পাদনায় যুক্ত ছিলেন।

আর তনয় ছিলেন লোকনাট্য দলের কর্মী। পিটিএ নামে একটি প্রতিষ্ঠানে ‘শিশু নাট্য প্রশিক্ষক’ হিসেবেও কাজ করতেন তিনি।

হামলাকারীদের অস্ত্রাঘাতে ওই বাড়ির দারোয়ান পারভেজ মোল্লা আহত হয়েছেন। বাধা দিতে গিয়ে আহত হয়েছেন মমতাজ নামে এক এএসআই।

এদিকে রাজধানীর কলাবাগানে বাসায় ঢুকে জুলহাস মান্নান ও তনয় হত্যার ঘটনাটি পরিকল্পিত বলে মন্তব্য করেছেন আইজিপি একেএম শহীদুল হক। মঙ্গলবার সকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে আইজিপি বলেছেন, আগের এ ধরনের হত্যাকাণ্ডগুলোর সঙ্গে এই হত্যাকাণ্ডের মিল আছে। জঙ্গি স্টাইলে খুন করা হয় জুলহাসকে। তবে এর আগের হত্যাকাণ্ড যেসব জঙ্গিরা ঘটিয়েছে তারাই এটা করেছে কিনা, তা এখনো নিশ্চিত না। তদন্তে সব কিছু বের হয়ে আসবে। অপরাধীদের শনাক্তের চেষ্টা চলছে।

ওই ঘটনায় নিহত জুলহাজ মান্নানের বড় ভাই মিনহাজ মান্নান কলাবাগান থানায় অজ্ঞাতনামা  ৫-৬ জনের নামে হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। আর পুলিশের এসআই শামীম আহমেদ অস্ত্র আইনে ৫-৬ জনকে আসামী করে মামলা করেছেন। জোড়া খুনের ঘটনায় একজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করে পরে তাকে ছেড়ে দিয়েছে কলাবাগান থানা পুলিশ।

অন্যদিকে ইউএসএআইডির কর্মী জুলহাজ মান্নান খুনের নিন্দা জানিয়ে এ হত্যাকাণ্ডের তদন্তে সহযোগিতার প্রস্তাব দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি।

স্থানীয় সময় সোমবার এক বিবৃতিতে কেরি জুলহাজ ও মাহবুব তনয় হত্যাকাণ্ডকে বর্বর আক্রমণ হিসেবে উল্লেখ করেছেন। তিনি ঢাকায় মার্কিন দূতাবাসের সাবেক কর্মী জুলহাজকে একজন বিশ্বস্ত সহকর্মী, সবার প্রিয় বন্ধু এবং মানবাধিকার ও মর্যাদার প্রবক্তা হিসেবে অভিহিত করেছেন।

কেরি বলেছেন, জুলহাজ ছিলেন একজন আস্থাভাজন সহকর্মী, একজন প্রিয়তম বন্ধু এবং বাংলাদেশে ব্যক্তির মর্যাদা ও মানবাধিকারের পক্ষে সোচ্চার।

বিবৃতিতে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, বাংলাদেশের চেতনা এবং সহনশীলতা, শান্তি ও বৈচিত্র্যের সুরক্ষায় বাঙালির যে ঐতিহ্য যারা লালন করেন জুলহাজ ছিলেন তাদের একজন প্রতিনিধি।

হত্যাকারীদের বিচারের আওতায় আনতে বাংলাদেশ সরকারকে ‘পূর্ণ সহযোগিতার’ প্রস্তাব দিয়েছেন তিনি।

Top