You are here
Home > জাতীয় > ‘রিজার্ভ লুটের ঘটনায় জড়িতরা আ.লীগের আত্মীয়স্বজন’

‘রিজার্ভ লুটের ঘটনায় জড়িতরা আ.লীগের আত্মীয়স্বজন’

‘রিজার্ভ লুটের ঘটনায় জড়িতরা আ.লীগের আত্মীয়স্বজন’

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদ বলেছেন, ‘দেশে আজ কী দেখছি, ব্যাংকের টাকা চুরি হয়ে যাচ্ছে। কোনো কথা বলা যাবে না, বললেই রাতের বেলা গুম হয়ে যাবেন। কোনো কিছু লেখা যাবে না। তাহলে আমরা কোন দেশে বাস করছি।’

এরশাদ সরকারকে উদ্দেশ করে বলেন, ‘ব্যাংকে আজ টাকা থাকে না লুট হয়ে যায়, এজন্য শুধু বিদেশিদের দায়ী করা হচ্ছে। আমাদের দেশের যারা জড়িত তাদের কথা বলা হয় না। কারণ, তারা আত্মীয়স্বজন।’

তিনি বলেন, ‘নির্বাচনে যতই কারচুপি করা হোক না কেন একদিন সুষ্ঠু নির্বাচন হতে হবে।’  দেশের মানুষ এখন এই সরকারকে চায় না বলেও মন্তব্য করেন এরশাদ।

বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে তিনটায় বরগুনা শহরের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার মাঠে জেলা জাতীয় পার্টির সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এরশাদ এসব কথা বলেন। জাতীয় পার্টিকে আরেকবার রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় আসীন করার আহ্বান জানিয়ে এরশাদ বলেন, ‘একটিবার দেশ ও ইসলামকে খেদমত করার সুযোগ দিন। দেশের সব ইসলামি দল একত্রিত হলে জাতীয় পার্টি ক্ষমতায় আসবে।’

বিএনপিকে উদ্দেশ করে এরশাদ বলেন, ‘হরতাল, অবরোধ, আগুন দিয়ে মানুষ পুড়িয়ে মারলেন। এভাবে রাজনীতি করা যায় না। মানুষ আজ আওয়ামী লীগ ও বিএনপি এ দুই দলকে ক্ষমতায় দেখতে চায় না। মানুষ জাতীয় পার্টিকে ক্ষমতায় চায়।’

শহরের সিরাজ উদ্দীন সড়কের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার মাঠে আয়োজিত এই সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন জাতীয় পার্টির সম্মেলন প্রস্তুত পরিষদের আহ্বায়ক সাবেক সাংসদ জাফরুল হাসান ফরহাদ। সম্মেলনে আরও বক্তব্য দেন দলের মহাসচিব এ বি এম রুহুল আমীন হাওলাদার, প্রেসিডিয়াম সদস্য সুনীল শুভ রায়, কেন্দ্রীয় নেতা শাহজাহান মনসুর প্রমুখ।

সম্মেলন শেষে সাবেক সাংসদ জাফরুল হাসান ফরহাদকে সভাপতি ও আবদুল লতিফ সিকদারকে সাধারণ সম্পাদক হিসেবে ঘোষণা দেন এরশাদ।

Top