You are here
Home > জাতীয় > ‘জয়কে হত্যার ষড়যন্ত্রে শফিক রেহমান, মাহমুদুর রহমান জড়িত’

‘জয়কে হত্যার ষড়যন্ত্রে শফিক রেহমান, মাহমুদুর রহমান জড়িত’

‘জয়কে হত্যার ষড়যন্ত্রে শফিক রেহমান, মাহমুদুর রহমান জড়িত’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, সজীব ওয়াজেদ জয়কে হত্যার ষড়যন্ত্র হয়েছিল যুক্তরাষ্ট্রে। সে দেশের আদালতেই এটি প্রমাণিত হয়েছে। এ ষড়যন্ত্রের সাথে সাংবাদিক শফিক রেহমান ও মাহমুদুর রহমানের সম্পৃক্ততা পাওয়া গেছে।

সোমবার বিকেলে রাজধানীর খামারবাড়িতে কৃষিবিদ ইনস্টিটিউটে এক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, জয়কে হত্যার ষড়যন্ত্রকারীদের অবশ্যই বিচার করা হবে।

ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উপলক্ষে সোমবার বিকেলে রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউটে আলোচনা সভার আয়োজন করে আওয়ামী লীগ। যেখানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আওয়ামী লীগ প্রধান শেখ হাসিনা বলেন, বিদেশের মাটিতে সজীব ওয়াজেদ জয়কে হত্যার পরিকল্পনায় যারা জড়িত; তাদের সম্পৃক্ততা যুক্তরাষ্ট্রেই নিশ্চিত হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘তারাই এটা ধরেছে, তারাই বিচার করেছে। তাদেরই তদন্তে বেরিয়ে এসেছে সেখানে তাদের অফিসারকে বিএনপির নেতা ঘুষ প্রদান করেছে। সেখানেই বেরিয়ে এসেছে শফিক রেহমান, মাহমুদুর রহমানসহ তাদের নাম। আমেরিকার কোর্টে এটা প্রমাণিত।’

যারা ষড়যন্ত্রকারীদের পক্ষ নিচ্ছেন তাদের সমালোচনা করে শেখ হাসিনা বলেন- আওয়ামী লীগ কখনোই অন্যায়কে প্রশ্রয় দেয় না।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘যারা এতো বড় ষড়যন্ত্রের সাথে লিপ্ত তাদের গ্রেফতার হলে যাদের মনে এতো ব্যথা জাগে ও নিন্দা করে অথচ ষড়যন্ত্র যে করল তার জন্য নিন্দা করে না। এটা কোন ধরণের সাংবাদিকতা? কোন ধরণের স্বাধীনতা? এখানে যারা ষড়যন্ত্রে লিপ্ত থাকবে তাদের বিরুদ্ধে অবশ্যই ব্যবস্থা নিতে হবে।’

এসময়, অশ্লীল শব্দে ধর্ম নিয়ে মন্তব্য কী করে মুক্তচিন্তা হয়, তা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, ‘মুক্তচিন্তা যদি বিকৃত লালসা হয়, বিকৃত মানসিকতা হয়, নোংরা ও জঘন্য ভাষায় যদি কথা লেখা হয়- এটার নাম নিশ্চয়ই মুক্তচিন্তা নয়। এটা বিকৃত মানসিকতা। মুক্তচিন্তার কথা যারা বলে তারা ষড়যন্ত্রকারীদের জন্যও কাঁদে তাদের নানারকম চরিত্র। তাহলে তারা দেশকে কোথায় নিতে চায়?’

Top